ডলফিন মাছের দৃষ্টিকোণ ও শ্রবণশক্তি।



ডলফিনের দৃষ্টিশক্তি খুবই প্রখর। এরা পানির নিচে ও ওপরে উভয় জায়গায় অনেক দূর পর্যন্ত দেখতে পায়। এদের চোখের লেন্স সহজেই প্রসরিত ও কংকুচিত হতে পারে। ফলে ডলফিন পানির ওপরে ও নিচে তাকাতে পারে। এদের চোখে বিশেষ এক ধরনের গ্রন্থি আছে, যা চোখকে লবণাক্ত পানি থেকে রক্ষা করে। ডলফিনের শ্রবণশক্তি সবচেয়ে বেশি। সমুদ্রে যে কোনো ধরনের আওয়াজ শুনতে পায় এরা। এদের বাহ্যিক কান আছে। এবং কানের ফুটো কামানের মুখের মতো। খাবারের খোঁজে ডলফিন মাঝে-মধ্যে শব্দের প্রতিধ্বনি ব্যবহার করে। এরা প্রথমে একটি তীক্ষ্ণ শব্দ করে। এই শব্দ খাদ্যের গায়ে আঘাত করে প্রতিধ্বনিত হয়ে তাদের কাছে ফিরে আসে। এভাবে এরা শিকার বা খাদ্য শনাক্ত করতে পারে। চলার পথে বাধা এড়িয়ে চলতেও ডলফিন এই প্রতিধ্বনি পদ্ধতি ব্যবহার করে।

নাইমুল ইসলাম

পোস্টটি লিখেছেন
আমি জয়। আমি এই ব্লগের এডমিন। ঢাকা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের স্থাপত্য বিভাগের একজন ছাত্র। আমি খুলনা থেকে ঢাকায় পড়তে এসেছি। আমি ব্লগ লিখি এবং আমি একজন ইউটিউবার। এর পাশাপাশি আমি গ্রাফিক ডিজাইন এর কাজ করি। ঘুরে বেড়ানো এবং সিনেমা দেখা আমি খুব পছন্দ করি।
Follow her @ Twitter | Facebook | YouTube

No comments

পোস্টটি কেমন লাগলো তা কমেন্ট করে জানাতে পারেন । আপনাদের কোন সমস্যাও কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমরা যতটুকু সম্ভব সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো ।

Theme images by sbayram. Powered by Blogger.